সৌদিতে প্রতিনিয়ত নির্যাতনের শিকার বাংলাদেশি প্রবাসী নারী শ্রমিকরা

0
313

সৌদি আরবে প্রবাসী কয়েক’শ বাংলাদেশি নারী শ্রমিক প্রতিদিন শারীরিক, মানসিকভাবে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। সম্প্রতি সৌদি ফেরত কয়েকজন নারীর সাক্ষাতকার নিয়ে জার্মান গণমাধ্যম ডয়েচেভেলের (ডিডব্লিউ) একটি প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয়েছে।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, ২০১৫ সালে বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে জনশক্তি চুক্তি সাক্ষরিত হওয়ার পর নির্যাতনের ঘটনা বেড়ে গেছে। গত ৩ বছরে সৌদি থেকে ফেরত আসা নির্যাতিত নারীর সংখ্যা দুই লাখ ছাড়িয়ে গেছে। যেখানে ১৯৯১ সাল থেকে শুরু করে ২০১৫ সাল পর্যন্ত এ সংখ্যা ছিল ৩২ হাজারের কাছাকাছি।

দেশটি থেকে ফেরত আসা শেফালী নামে ২৫ বছর বয়সী এক নারী শ্রমিক জানান, দিনে মাত্র একবেলা খাবার দেওয়া হত তাকে, অহরহ বেত্রাঘাতও করা হত। দেশে ফিরে আসার পর ২০ দিন পর্যন্ত হাসপাতালে থাকতে হয়েছে। এমনকি স্বাভাবিক হাঁটা-চলার মত অবস্থাও ছিল না।

এ প্রসঙ্গে ব্র্যাকের অভিবাসন বিশেষজ্ঞ শরীফুল হাসান জানান, শারীরিক নির্যাতনসহ ও খাবারও দেওয়া হয় না শ্রমিকদের। এমনকি দেশের সাথে যোগাযোগের কোনো ব্যবস্থা না থাকায় পালানো ছাড়া আর কোনো উপায় থাকে না শ্রমিকদের। ফলে গর্ভবতী হয়ে কিংবা আহত অবস্থায় দেশে ফিরে আসতে বাধ্য হচ্ছেন তারা।

প্রসঙ্গত, সরকারের জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) দেওয়া তথ্য মতে প্রথম আলো জানায়, ২০১৭ সালে ১৮টি দেশে যাওয়া নারী শ্রমিকের সংখ্যা ছিল এক লাখের বেশি। এর মধ্যে ৮৩ হাজার ৩৫৪ জন নারী শ্রমিকই সৌদি আরবে গেছে। ডিডব্লিউ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here