হাসপাতালের টানাটানিতে ব্যাহত হচ্ছে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা

0
145

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে ৬ মাস পার করেছেন। হাসপাতালের টানাটানিতে তার চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হচ্ছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য গঠন করা হচ্ছে নতুন মেডিকেল বোর্ড। সেই বোর্ডের সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করবে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা কোথায় হবে। সরকারের অন্য মন্ত্রীরা বলেছেন, সরকারি হাসপাতলে তাকে চিকিৎসা নিতে হবে। বিএনপি নেতারা ইউনাইটেড হাসপাতাল বা অ্যাপোলো হাসপাতাল চিকিৎসা দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। ফলে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হচ্ছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। বিশেষায়িত হাসপাতালে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করা হয়েছে।

বন্দি জীবনে খালেদা জিয়া অসুস্থ হয়ে পড়ছেন বলে বিএনপির পক্ষ থেকে বারবার দাবি করার পর গত এপ্রিলের শুরুতে তাকে বিভিন্ন পরীক্ষা করাতে বিএসএমএমইউতে আনা হয়েছিল। তবে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা শেষে ওই দিনই তাকে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে আবার ফেরত নেয়া হয়। বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে, কিন্তু তিনি সেই প্রস্তাব নেননি। তাকে অন্য কোনো হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হবে কিনা সেটা কারাগারের বিষয়। আর বিচার দেখছে আদালত, এটা সরকারের বিষয় না।

চিকিৎসার অভাবে খালেদা জিয়ার জীবন শঙ্কা তৈরি হয়েছে বলে মনে করছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক। ৫ জুন তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েছিলেন। মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এফএম সিদ্দিকী বলেছেন, দিনের পর দিন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসা সেবা না পওয়ায় খালেদা জিয়া মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ বা পূর্ণাঙ্গ স্ট্রোকের ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। বিবিসির সাথে এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, ট্র্যানজিয়েন্ট ইস্কেমিক অ্যাটাক (টিআইএ) হয়ে খালেদা জিয়া অজ্ঞান হয়ে পড়েছিলেন।

১২ জুন খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কানদার বলেছেন, আমার বড় বোন নাজিমউদ্দীন রোডের কারাগারে বন্দি রয়েছেন। তিনি বিভিন্ন অসুখে ভুগছেন। কিন্তু কারাগারে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা পাচ্ছেন না। ফলে দীর্ঘ কারাবাসে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। খালেদা জিয়ার চার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক কারাগারে স্বাস্থ্য-পরীক্ষা করে জানিয়েছেন, তার মাইল্ড স্ট্রোক হয়েছিল। এ ধরনের বিষয় বড় ধরনের স্বাস্থ্যঝুঁকির পূর্বাভাস বহন করছে। কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার জাহাঙ্গীর কবির জানিয়েছেন, খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা দেয়ার জন্য আমরা সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। কিন্তু তিনি বিএসএমএমইউতে যাবেন না বলে অনীহা প্রকাশ করেছেন। তাই তাকে হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে না। তিনি জানান, খালেদা জিয়া গুলশানের বেসরকারি ইউনাইটেড হাসপাতালে যেতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here