২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় বিএনপি ওতপ্রোতভাবে জড়িত : প্রধানমন্ত্রী (ভিডিও)

0
202

 প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রকাশ্যে দিবালোকে এমন হামলা পৃথিবীতে নজিরবিহীন । ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় বিএনপি ওতপ্রোতভাবে জড়িত। ক্ষমতায় থেকে এই ধরনের একটি ঘটনা বিএনপি জামায়াত জোট সরকারই ঘটিয়েছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। তারা শুধু রক্ত নিতেই জানে। দেশবাসীকে তাদের ব্যাপারে সজাগ থাকতে হবে। ২০০৪ সালে ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের জনসভায় গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে অস্থায়ী বেদিতে শ্রদ্ধা জানানোর পর প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৫ আগস্টের মতো ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায়ও জিয়া পরিবার জড়িত। ওই হামলার পর তৎকালীয় প্রধানমন্ত্রী বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া সংসদে দাঁড়িয়ে উপহাস করেছিলেন। সেই সরকার সংসদে দাঁড়িয়ে বলেছিল আমি নাকি গ্রেনেড ভেনিটি ব্যাগে করে নিয়ে গিয়েছিলাম।

তিনি আরো বলেন, আমি বুঝলাম না হামলা মামলায় কখন আমরা অভ্যস্ত ছিলাম। খুন-গুমে তো তাঁরাই পারদর্শী। তারা কোটালিপাড়ায় বোমা হামলা করেছে। সারাদেশে ৬৩ জেলায় একযোগে বোমা হামলা হয়েছে তাঁদের শাসনামলে। কূটনীতিকদের ওপর হামলা করেছে। আমাদের দলের নেতাদের হত্যা করেছে। সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এম এস কিবরিয়া, সংসদ সদস্য আহসান উল্লা মাস্টারদের হত্যা বিএনপি-জামায়াতই করেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে হত্যা করা হয়। ২১ আগস্টের মত ১৫ আগস্টেরও হত্যাকাণ্ডে বিএনপি জড়িত এতে কোন সন্দেহ নেই।

তিনি বলেন, বাংলার ইতিহাসে নয়, পৃথিবীর ইতিহাসে এমন জঘন্য ও নৃশংসতম ঘটনা ঘটেনি। মাত্র কয়েক সেকেন্ড পর পর ১৩ গ্ৰেনেড হামলা করা হয়। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মানবধর্ম করে আমাকে জীবনকে বাঁচিয়েছেন । একমাত্র আমাকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে হামলা করা হয় । তারপর যখন আমার গাড়িতে করে চলে যাচ্ছিলেন তখনও আমার গাড়ি লক্ষ্য করে গ্ৰেনেড হামলা করা হয়। আমার গাড়ির উপর গুলি করা হয় ।

তিনি বলেন, প্রকাশ্য দিবালোকে এমন জঘন্য হামলা ন্যক্কারজনক হলেও প্রকাশ্যে দিবালোকে হামলার আলামত মুছে ফেলার জন্য তখনকার ঢাকা সিটি করপোরেশনের মেয়র সাদেক হোসেন খোকা নির্দেশ দেন।

তিনি বলেন, সন্ত্রাসী হামলার সাথে যারা জড়িত তাদের কে চিহ্নিত করতে না পারে। দুঃখ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রশাসন এখানে নিয়ন্ত্রণে ছিল, যার কারণে পুলিশ ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বাধা দেয় । ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় পুলিশ সহযোগিতা না করে উল্টো নেতাকর্মীদের উপর নির্মম ভাবে কাঁদানি গ্যাস ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া সংসদে দাঁড়িয়ে বলেছিলেন যে , হাসিনা তার ভ্যানিটি ব্যাগে জনসভায় গ্ৰেনেড নিয়ে এসেছিল। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা হামলা চালিয়েছে বলে উল্টো অপবাদ দিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, হামলার সময় দেশের সরকার প্রধান ছিলেন বেগম খালেদা জিয়া, তিনি বলেছিলেন শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী তো দূরের কথা কোনো দিন বিরোধীদলীয় নেতাও হতে পারবেন না। আওয়ামী লীগ ১শত বছরেও ক্ষমতায় আসতে পারবে না।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, সন্ত্রাসী হামলা কর্মকাণ্ডেকে প্রতিরোধ করার জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

এর আগে নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন তিনি। এ সময় সরকারের মন্ত্রিসভার সদস্য, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা, শরিক দলের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে নিহতদের আত্মার শান্তি ও মাগফেরাত এবং আহতদের সুস্থতা কামনা করে দোয়া মোনাজাত করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here