আওয়ামী লীগের আমলে মুক্তিযোদ্ধার ১৮ কাঠা জমি দখল

0
331

রাজশাহী নগরীতে এক অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধার জমি অবৈধভাবে দখলের চেষ্টা করছে একটি কুচক্রিমহল। জমি দখলের প্রতিবাদ জানাতে গেলে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা মুক্তিযোদ্ধাকে সহ তাঁর পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে থানায় অভিযোগ দিলেও পুলিশ এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।

সোমবার দুপুরে রাজশাহী মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধা মোজাহারুল ইসলামের পরিবার এ অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শোনান, মুক্তিযোদ্ধা মোজাহারুল ইসলামের মেয়ে উরসী মাহফিলা ফাতেহা।

লিখিত বক্তব্যে তিনি উল্লেখ করেন, আমার বাবা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। বর্তমানে তিনি অসুস্থ অবস্থায় বিছানাগত। এই সুযোগে আমাদের প্রতিপক্ষ মিলন ও রুহুল আমিন, উভয়ের পিতা মৃত জমসেদ আলী ম-ল, সাং-মোল্লাপাড়া (মধ্য মোল্লাপাড়া), থানা কাশিয়াডাঙ্গা আমাদের জমি দখল করার জোর চেষ্টা চালাচ্ছে। মুক্তিযোদ্ধা মোজাহারুল ইসলামের পরিবার জানান, মিলন ও রুহুল ভূমিদস্যু, গরু ব্যবসার সিন্ডিকেট, মাদক ব্যবসা সহ সকল ধরনের অপকর্মের সাথে জড়িত রয়েছে।

১৩ তারিখ বৃহস্পতিবার ভোর সকালে ৫টা থেকে সাড়ে ৫টার দিকে মো: মিলন ও রুহুল আমিন ২০-২৫ জন সন্ত্রাসী নিয়ে আমাদের তফসিল বর্ণিত সম্পত্তির আর.এস ২০৪, ২০৬ ও ১১৫ দাগের ওপর বাঁশ, খুঁটি, টিন, ইট, বালি দিয়ে জমিটি দখলের চেষ্টা চালায়। এসময় বাধা দিতে গেলে আমাদের ওপর প্রতিপক্ষের লোকজন উত্তেজিত হয়ে মারমুখী আচরণ শুরু করে। এমনকি তারা আমাদেরকে অব্যাহত ভাবে হত্যার হুমকিও দিচ্ছে। এতে করে আমরা আশংকা করছি যে, প্রতিপক্ষরা আমাদের পরিবারের সদস্যদের যে কোনো ধরণের ক্ষতি সাধন করতে পারে এবং আমাদের তফসিলভুক্ত জমি বলপূর্বক দখল করতে পারে।
এ ঘটনার প্রেক্ষিতে প্রতিকার পেতে এবং আমাদের প্রধান প্রতিপক্ষ নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানার মোল্লাপাড়া (মধ্য মোল্লাপাড়া) গ্রামের মৃত জমসেদ আলীর ছেলে মো: মিলন ও মো: রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ১৩ তারিখ বৃহস্পতিবার রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার বরাবর লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। এছাড়া গত ১৫ তারিখে নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানায় সাধারণ ডায়েরিও করা হয়। যার জিডি নম্বর: ৪৮৬।

মুক্তিযোদ্ধা মোজাহারুল ইসলামের পরিবার অবিলম্বে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে ভূমিদস্যু মিলন ও রুহুলের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য জোর দাবী জানিয়েছেন। এছাড়াও পরিবার বলেন, এই সরকার মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বহন করে বিধায় একজন মুক্তিযোদ্ধার পরিবার হিসেবে প্রশাসনের কাছে তারা সর্বোচ্চ সহযোগিতা আশা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here