আ.লীগ নাশকতা করে বিএনপির ওপর দায় চাপাবে : রিজভী

0
200

রকার নিজ দলের ক্যাডারদের দিয়ে নাশকতা সৃষ্টি করে বিএনপির ওপর এর দায় চাপাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে বিএনপি। এছাড়া পরিকল্পিতভাবে ককটেল বিস্ফোরণসহ নানা ধরণের জ্বালাও-পোড়াওয়ের নাশকতা করা হবে বলেও দলটির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে এসব কথা বলেন দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, ‘শোনা যাচ্ছে সামনের দিনগুলোতে সরকার নিজ দলের ক্যাডারদের দিয়ে নাশকতা সৃষ্টি করে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর এর দায় চাপাবে। ককটেল বিস্ফোরণসহ নানা ধরণের জ্বালাও-পোড়াওয়ের নাশকতা করা হবে পরিকল্পিতভাবে। আর বিএনপি নেতা-কর্মীদেরকে এই নাশকতার দায়ে জড়ানো হবে। এজন্য নাকি আওয়ামী ক্যাডারদের সহযোগিতা করার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বিএনপির এই মুখ্যপাত্র আরও বলেন, ‘সরকার এক গোপন সহিংস পরিকল্পনার ছক আঁটছে বিরোধী দলের কর্মসূচিকে জনগণের সামনে নানাভাবে বিভ্রান্ত ও কালিমালিপ্ত করার জন্য-যেভাবে তারা ২০১৪ ও ১৫ সালের আন্দোলনে নিজেরাই নাশকতা করে বিএনপি’র ওপর এর দায় চাপিয়েছে।’

গতকাল এক অনুষ্ঠানে দেওয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছে নির্বাচন কমিশনকে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনে সব ধরণের সহযোগিতা দেবেন। এই বক্তব্য জনগণের মধ্যে হাসির খোরাক যুগিয়েছে। সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রধান অন্তরায় প্রধানমন্ত্রী নিজে, সুতরাং ইসি-কে তাঁর সহযোগিতা দেয়ার অর্থ হলো আগামী জাতীয় নির্বাচনে ফন্দি ফিকির করার জন্যই যে তিনি সহযোগিতা দেবেন সে বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। কারণ সেটির বহু স্পষ্ট প্রমান তিনি ইতোমধ্যে দিয়েছেন।

ছাত্রদলের সাবেক এই নেতা আরও বলেন, কিভাবে ইসি সরকারী দলের ভোট সন্ত্রাস ও ডাকাতির ফলাফলের বৈধতা দেয় সেটি গত নির্বাচনগুলোতে ফুটে উঠেছে। শেখ হাসিনার কমিশনকে সহযোগিতা করার অর্থ হলো ইসি’র আত্মসমর্পন নিশ্চিত করা। সেই ইসি’র নির্বাচনে সাধারণ ভোটারদের বাড়িতে বসে থাকতে হবে, ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার অধিকার থাকবে না। দেশে সুষ্ঠু নির্বাচনের একমাত্র গ্যারান্টি শেখ হাসিনার পদত্যাগ ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন।’ ‘সরকার প্রধানের ও তাঁর সরকারের অপকীর্তি ও অনাচারের ভয়ে সবসময় তটস্থ, তাঁর সিংহাসন টলমল করছে। যেকোন সময় পড়ে যাওয়ার আশঙ্কায় দমনের তরবারী নিয়ে তিনি ছুটে বেড়াচ্ছেন দিকবিদ্বিক। মোমবাতি নিভে যাওয়ার আগে যেমন দপ করে জ্বলে ওঠে, তেমনি পতনের আগে ব্যাপক দমননীতির আশ্রয় নিয়েছে সরকার।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যানের আহমেদ আজম খান, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here