গভীর রাতে ঘুম ভাঙলে যে দোয়া ও আমল করবেন

0
33

মাঝ রাতে ঘুম ভেঙে গেলে যদি কেউ তার বিছানা থেকে ওঠে যায় তবে করণীয় কী? আবার পুনরায় ঘুমাতে গেলেই বা তার জন্য করণীয় কি? এ সম্পর্কে কী দোয়া ও আমল করতে বলেছেন বিশ্বনবি? গভীর রাতে ঘুম ভাঙলে একটি আমল, দুইটি দোয়া ও কিছু তাসবিহ পড়ে বিশেষ আবেদন-নিবেদন করার তথা বলেছেন স্বয়ং বিশ্বনবি। হাদিসের বর্ণনায় তা সুস্পষ্ট ও প্রমাণিত। তাহলো-

১. আমল ও দোয়া

মাঝ রাতে ঘুম থেকে ওঠে গেলে পুনরায় ঘুমাতে যাওয়ার আগে বিছানা ৩ বার ঝেড়ে নেওয়া। তারপর শোয়ার সময় দোয়া পড়া। হাদিসে এসেছে-

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন যে, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘তোমাদের কেউ তার বিছানা (ঘুম) থেকে উঠার পর আবার বিছানায় (ঘুমানোর জন্য) ফিরে আসলে, সে যেন তার লুঙ্গীর নিম্নাংশ দিয়ে বিছানাটি তিনবার পরিষ্কার করে নেয়। কারণ সে জানে না, তার অনুপস্থিতিতে তাতে (ময়লা বা ক্ষতিকর কিছু) কি পতিত হয়েছে ।

আর যখন সে শুয়ে পড়ে সে সময় যেন বলে-

بِاسْمِكَ رَبِّي وَضَعْتُ جَنْبِي وَبِكَ أَرْفَعُهُ فَإِنْ أَمْسَكْتَ نَفْسِي فَارْحَمْهَا وَإِنْ أَرْسَلْتَهَا فَاحْفَظْهَا بِمَا تَحْفَظُ بِهِ عِبَادَكَ الصَّالِحِينَ

উচ্চারণ : ‌বিসমিকা রাব্বি ওয়াদাতু ঝাম্বি ওয়াবিকা আরফাউহু ফাইন আমসাকতা নাফসি ফারহামহা ওয়া ইন আরসালতাহা ফাহফাজহা বিমা তাহফাজ বিহি ইবাদাকাস সালিহিনা।

অর্থ : ‘হে আমার প্রতিপালক! তোমার নামে বিছানায় শয়ন করলাম এবং আবার তোমার নামেই জেগে ওঠবো। যদি তুমি আমার জান (জীবন) রেখে দাও তবে তার প্রতি দয়া কর, আর যদি তাকে ছেড়ে দাও (মৃত্যু দান কর) তবে তা সেভাবে প্রতিরক্ষা কর যেভাবে তুমি তোমার নেক বান্দাদের প্রতিরক্ষা কর।’

অন্য বর্ণনায় এসেছে, (নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন) ‘তোমাদের কেউ যখন ঘুম থেকে জেগে ওঠে, তখন সে যেন বলে-

الْحَمْدُ لِلَّهِ الَّذِي عَافَانِي فِي جَسَدِي وَرَدَّ عَلَىَّ رُوحِي وَأَذِنَ لِي بِذِكْرِهِ ‏

উচ্চারণ : ‌আলহামদুলিল্লাহিল্লাজি আফানি ফি ঝাসাদি ওয়া রাদ্দা আলাইয়্যা রুহি ওয়া আজিনা লি বিজিকরিহি।

অর্থ : ‘সব প্রশংসা আল্লাহ তাআলার যিনি আমার দেহকে প্রশান্তি দিয়েছেন এবং আমার (দেহে) জান আবার আমাকে ফেরত দিয়েছেন এবং তাকে স্মরণ করারও অনুমতি (তাওফিক) দান করেছেন।’ (তিরমিজি)

গভীর রাতে দোয়া কবুলে দোয়া ও তাসবিহ

গভীর রাতে দোয়া কবুলে তাসবিহ পড়ার কথা বলেছেন স্বয়ং বিশ্বনবি। হাদিসে এসেছে-

হজরত উবাদাহ ইবনু সামিত রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, আল্লাহর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি রাতে জেগে ওঠে এ দোয়া পড়ে-

لآ إِلَهَ إِلاَّ اللهُ وَحْدَهُ لاَ شَرِيكَ لَهُ لَهُ الْمُلْكُ وَلَهُ الْحَمْدُ وَهُوَ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ

উচ্চারণ : ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু লা শারিকা লাহু লাহুল মুলকু ওয়া লাহুল হামদু ওয়া হুয়া আলা কুল্লি শাইয়িন কাদির।

অর্থ : ‘এক আল্লাহ ব্যতিত প্রকৃত কোনো ইলাহ নেই। তিনি এক তাঁর কোনো শরিক নেই। রাজ্য তাঁরই। যাবতীয় প্রশংসা তাঁরই। তিনিই সব কিছুর উপর সর্ব শক্তিমান।’

(এরপর এ তাসবিহগুলো পড়া)-

الْحَمْدُ لِلَّهِ  : আল হামদুলিল্লাহ : ‘সব প্রশংসা আল্লাহর জন্য।’

وَسُبْحَانَ اللهِ  : ওয়া সুবহানাল্লাহি : ‘আল্লাহ তাআলা পবিত্র।’

وَلآ إِلَهَ إِلاَّ اللهُ  : ওয়া লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু : ‘আল্লাহ ছাড়া কোনো ইলাহ নেই।’

وَاللهُ أَكْبَرُ  : ওয়াল্লাহু আকবার : ‘আল্লাহ মহান।’

وَلاَ حَوْلَ وَلاَ قُوَّةَ إِلاَّ بِاللهِ : ওয়া লা হাওলা ওয়া লা কুয়্যাতা ইল্লা বিল্লাহ : ‘আল্লাহ ছাড়া গুনাহ হতে বাঁচার এবং নেক কাজ করার কোনো অবস্থা ও কোনো শক্তি নেই।’

এরপর বলে-

اللَّهُمَّ اغْفِرْ لِي : আল্লাহুম্মাগফিরলি : হে আল্লাহ! আমাকে ক্ষমা করে দিন। অথবা অন্য কোনো দোয়া করে তবে তার দোয়া কবুল করা হয়।’ এরপর অজু করে (নামাজ পড়লে) তার নামাজ কবুল করা হয়।’ (বুখারি)

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে হাদিসের অনুসরণে গভীর রাতে উল্লেখিত আমল, তাসবিহ ও দোয়া করার তাওফিক দান করুন। আমিন। সূত্র : জাগোনিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here