নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান: কাদের

0
264

নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগরে নির্বাচনী সাংগঠনিক সফররে অংশ হিসেবে বিমান, ট্রেনের পরে এবার সড়কপথে কক্সবাজার সফর শুরু করেছেন আওয়ামী লীগরে সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

গতকাল ধানমন্ডি আওয়ামী লীগ সভাপতর রাজনতৈকি র্কাযালয় থেকে সড়ক পথে সাংগঠনিক সফর শুরু করেন। এসময় আগে সাংবাদকিদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলনে, এই সফরে আমরা নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার ব্যাপারে কথা বলবো। পাশাপাশি কোন্দল মিটিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে নির্বাচনী লড়াইয়ের অংশ  নেয়ার বিষয়ে নির্দেশনা দিবো। এ সফর থেকে আমাদরে সরকাররে বিপুল উন্নয়ন ও র্অজনের বার্তাগুলো জনগণরে কাছে পৌঁছে দিয়ে নির্বাচনী লড়াইয়ের  জন্য প্রস্তুতি নিতে বলব। দেশের জনগণ আওয়ামী লীগের ওপর আস্থা রাখছে দাবি করে বলেন আমাদের বিশ্বাস আছে গত ১০ বছরে উন্নয়ন ও অর্জনই আমাদের জয় নিশ্চিত করবে।

নির্বাচনী যাত্রায় কুমিল্লার ইলিয়টগঞ্জ স্কুল মাঠ, কুমিল্লা টাউন হল মাঠ, এইচ জে পাইলট হাইস্কুল মাঠ, চৌদ্দগ্রাম জনসভায় ওবায়দুল কাদের বলেন, অপর্কমের জন্য যারা বির্তকিত তারা আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন পাবেন না। যারা নিজ দলের নেতাদের বিরুদ্ধে চা দোকানে বসে সমালোচনা করবেন আর বিএনপি-জামায়াতের অপকর্ম তুলে ধরবেন না। তারা মনোনয়ন পাবেন না। প্রার্থী হতে চান প্রার্থী হবেন, তাহলে আগে দলের জন্য কাজ করেন। এক আসনে দল থেকে একাধিক মনোনয়ন দেয়া হবে না, ঘরের ভিতর ঘর হবে না। দুঃসময়ের ত্যাগী ও জনপ্রিয় ব্যক্তিদের হাতেই নৌকার প্রতীক তুলে দিবেন শেখ হাসিনা। নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে বিএনপির নেতারা আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে বিদেশেীদের কাছে নালিশ দিয়ে যাচ্ছে। দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করে বিএনপি এখন নালিশ পার্টিতে পরিণত হয়েছে।

ফেনীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্ত্বরে জনসভায় ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি আন্দোলন করতে পারে না। তার প্রমাণ হয়েছে তাদের নেতাদের বক্তব্যে।  ঈদের পরে আন্দোলন করবে এই কথা বলেই ১০ বছর পার করেছে। দেখতে দেখতে ১০ বছর, মানুষ বাঁচে কয় বছর, আন্দোলন হবে কোন বছর? মির্জা ফখরুল সাহেব আন্দোলনের কি খবর? বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দানকারী এদেশের সর্ববৃহৎ দল। যুক্তরাষ্ট্রে র একটি সংস্থা আই.আর.আই এর জরিপে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখনো ৬৬% জনপ্রিয় আর আওয়ামীলীগ ৬৪% জনপ্রিয় দল। তাই আওয়ামী লীগকে বাদ দিয়ে কোন জাতীয় ঐক্য হবে না। মহানগর নাট্যমঞ্চে নামসর্বস্ব প্রায় ৩০টি দলের জাতীয় ঐক্যের সমাবেশ এক হাজার লোক উপস্থিত হয়নি। তাদেরকে জনসভার জন্য সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে উম্মুক্ত মঞ্চ করে দেয়া হয়েছে, তার পরে সেই সাহস নেই জনসভার করার।

ঢাকা-কক্সবাজার সফরকালে তিনি ভবেরচর-গজারিয়া-মুন্সীগঞ্জ মহাসড়কের এলাকায় ৮০.৫৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ১২.৬০ কিলোমিটার সড়কের মধ্যে ৪টি  ব্রীজ ও ১টি কালভার্টের কাজ উদ্বোধন করেন।

সকল প্রস্তুতি ঠিক থাকলেও আওয়ামীলীগ কেন্দ্রের নির্দেশে শেষ মুহূর্তে সীতাকুন্ডের পথসভা বাতিল করা হয়।

আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এ নির্বাচনী পথসভা শুরু করেছে গত ৩০ আগস্ট সিলেটে বিমান যাত্রার মাধ্যেমে। এরপর দ্বিতীয় দফায় ৮ সেপ্টেম্বরে ট্রেনযোগে নীলফামারী আওয়ামী লীগের নির্বাচনী যাত্রা। রোববার লোহাগাড়া ও কক্সবাজারে পথসভার মধ্য দিয়ে দুই দিনের কর্মসূচি শেষ হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here