পাথর গায়েবের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

0
279

আহমদ শফী জীবনঃ মধ্যপাড়া কঠিন শিলা কোম্পানির ৫৫ কোটি টাকা মূল্যের সাড়ে ৩ লাখ টন পাথর গায়েবের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে পেট্রোবাংলা। কোম্পানির ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাবেদ চৌধুরীকে প্রধান করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। পেট্রোবাংলা সূত্রে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

কমিটির অপর সদস্যরা হলেন পেট্রোবাংলার ম্যানেজার বেলায়েত হোসেন, আনোয়ার হোসেন খান ও মধ্যপাড়া কঠিন শিলা খনির উপমহাব্যবস্থাপক রাজেউন নবি।

প্রসঙ্গত, মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের নাম এস এম নুরুল আওরঙ্গজেব। তিনি বড়পুকুরিয়ার কয়লা খনির কয়লা চুরির বিষয়েও অভিযুক্ত। এ বিষয়ে দুদক তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। তাকে হজে যাওয়ার জন্য ৪২দিনের ছুটি দেওয়া নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়ে পেট্রোবাংলা। উনি হজে যাবেন বলেই ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব দেওয়া হয় পেট্রোবাংলার মহাব্যবস্থাপক (মাইন অপারেশন) জাবেদ চৌধুরীকে।

উল্লেখ্য, দিনাজপুরে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে ১ লাখ ৪৪ হাজার টন কয়লা গায়েব হয়েছে বলে জানাচ্ছে দুদক। এরই মধ্যে একই জেলায় দেশের একমাত্র পাথর খনি মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানিতেও এবার ৩ লাখ ৬০ হাজার টন পাথরের হদিস মিলছে না। পেট্রোবাংলা ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট শাখায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ২৯ জুলাই জ্বালানি বিভাগে মধ্যপাড়া নিয়ে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে তিন লাখ ৬০ হাজার টন পাথরের হিসেব না থাকার কথা উল্লেখ করা হয়। মধ্যপাড়া পাথর খনি থেকে বলা হয়, গায়েব হওয়া এই পাথরের মূল্য ৫৫ কোটি টাকারও বেশি। গায়েব হওয়া এই পাথর মাটিতে দেবে গেছে বলে হিসেব থেকে সম্প্রতি মুছে ফেলার (রাইট অফ) প্রস্তাব করছে রাষ্ট্রায়ত্ত মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানি। বৈঠকে এই পাথর ঘাটতির বিষয়টি অবলোপন অর্থাৎ গায়েব করে দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়।

কোম্পানির গত বার্ষিক সাধারণ সভায় বিষয়টি উত্থাপন হওয়ার পর যাচাই বাছাইয়ের জন্য কমিটি করা হয়। ওই কমিটি উল্লেখ করেছে, সিস্টেম লসের সঙ্গে মাটিতে ৫৫ কোটি টাকার পাথর দেবে যাওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেছে। তবে উত্তোলিত শিলার রেকর্ড, শিলা বিক্রয় ও সরবরাহের রেকর্ড, বাস্তবে শিলার মজুত এবং কোম্পানির অ্যাকাউন্ট বুকে লিপিবদ্ধ রেকর্ডের মধ্যে অসমতা দেখা গেছে।

১৯৭৪ সালে আবিষ্কৃত খনিটিতে মজুতের পরিমাণ ১৭৪ মিলিয়ন টন। প্রায় এক যুগ ধরে এই খনি থেকে পাথর উত্তোলন করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here