প্রতিযোগিতার উদ্বোধন হলেও শুরু হয়নি আবেদন প্রক্রিয়া

0
320

লচ্চিত্রে অভিনয়শিল্পী খোঁজার প্লাটফর্ম ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন রাাজধানীর অভিজাত হোটেলে করা হয়। উদ্বোধনী প্রতীকী প্রতিযোগী হিসেবে প্রথম আবেদন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তিনিই একমাত্র প্রতিযোগি হিসেবে এখনও আছেন। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বলা হয় দুদিনের মধ্যে সাধারণ প্রতিযোগিরা আবেদন করতে পারবেন। কিন্তু দুদিন পেরিয়ে গেলেও এখনও কোনও প্রতিযোগিতা করার জন্য আবেদন করতে পারেননি।

এ বিষয়ে পরিচালক সমিতে যোগাযোগ করা হলে সমিতির মহাসচিব বডিউল আলম খোকন বলেন, ‘আমাদের কিছু টেকনিক্যাল সমস্যা হয়েছে যার কারণে এখনও আগ্রহী শিল্পীরা নিবন্ধন করতে পারেননি। আমাদের পরিচালক সমিতির ওয়েবসাইটের কিছু কাজ এখনো বাকি আছে। এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে নিবন্ধন প্রক্রিয়া হবে। আমরা আগামী দুই একদিনের মধ্যে নতুন করে জানাবো কবে থেকে নিবন্ধন শুরু হবে ।

সমিতির মহাসচিব আরও বলেন,‘ প্রতিযোগীদের আবেদনের সুবিধার্থে আমরা তিনটি প্রক্রিয়া রাখছি। প্রথমটি হচ্ছে, দেশের যেকোন জায়গা থেকে আমাদের পরিচালক সমিতির ওয়েবসাইট থেকে ফরম নিয়ে পূরণ করতে পারবেন। মোবাইল ফোনের মাধ্যমেও সুযোগ থাকছে। আবার কেউ ইচ্ছা করলে এফডিসি থেকে ফরম নিয়ে জমা দিয়ে যেতে পারবেন। যেখান থেকেই আবেদন করুক না কেনও তারা তাদের বিভাগ থেকেই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবেন।

কত দিন এই আবেদন করার সুযোগ থাকবে জানতে চাইলে তিনি জানান,‘ আমরা নিবন্ধন শুরু করার দিন থেকে একমাস চলবে। আমরা এই বিষয়গুলো গণমাধ্যমে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানাবো, বিজ্ঞাপন ও দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিলবোর্ডের মাধ্যমে আমরা আবেদন করার বিষয়গুলো প্রচার করব।’

পরিচালক সমিতির কার্যনির্বাহী সদস্য অপূর্ব রানা বলেন, ‘আমরা মোবাইল কোম্পানির সাথে চুক্তি করতে যাচ্ছি। তাদের মাধ্যমে মোাবাইলে প্রতিযোগীরা আবেদন করতে পারবেন। আর সারা বাংলাদেশে গ্রামীণের যতো কাস্টোমার কেয়ার আছে সেখান থেকেও ফরম নিতে পারবেন। আর অনলাইনে আমাদের অ্যাপস বানানো আছে। প্রথামিক কিছু বিষয় নিয়ে জিপির সাথে মিলে গেলেই জিপির মাধ্যমে সারাদেশে আবেদন শুরু হবে।

প্রতিযোগীরা আবেদন করলে তাদের কনফার্ম কিভাবে করা হবে জানতে চাইলে রানা বলেন, ‘যাঁরা অনলাইনে ফরম পূরণ করবেন, তাঁদের একটি আইডি নম্বর দেওয়া হবে। যাঁরা সমিতি থেকে ফরম পূরণ করবেন, তাঁদেরও একটি আইডি দেওয়া হবে। আবার যাঁরা মোবাইলের মাধ্যমে ফরম পূরণ করবেন, তাঁরাও সঙ্গে সঙ্গে একটি আইডি নম্বর পেয়ে যাবেন। আমরা দেশের সবকটি বিভাগে আলাদাভাবে শিল্পীদের নির্বাচন করব। তারপর নির্বাচিত শিল্পীদের নিয়ে এফডিসিতে চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা করব।’

নায়ক, নায়িকা, পার্শ্ব-অভিনেতা, খলনায়ক, কমেডি ও শিশুশিল্পী এই ছয়টি ক্যাটাগরিতে শিল্পী নেওয়া হবে। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির উদ্যোগে এবং বিএফডিসির সহযোগিতায় ‘অফট্র্যাক ইভেন্টস অ্যান্ড অ্যাডভারটাইজিং’ এবং ‘টিম ইঞ্জিন’-এর ব্যবস্থাপনায় শুর হয়েছে ‘নতুন মুখের সন্ধানে-২০১৮’। মিডিয়া পার্টনার এশিয়ান টিভি।

সর্বশেষ অনুষ্ঠিত হয় ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ প্রতিযোগিতা ১৯৯০ সালে । তারপর দীর্ঘ ২৭ বছর এই প্রক্রিয়াটি বন্ধ থাকে। এর আগে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ১৯৮৪, ১৯৮৮ সালে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল। প্রতিযোগিতাগুলো থেকে ওঠে এসেছিলো, মান্না, সোহেল চৌধুরী, দিতি, অমিত হাসান, আমিন খান, মিশা সওদাগরসহ জনপ্রিয় অনেক শিল্পীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here