বাংলাদেশ নামের ঘন্টাধ্বনি

0
248

১। ই তো মাত্র তিনদশক আগেই বিশ্ব ক্রিকেট অঙ্গনে বাংলাদেশ ছিল ‘আ-ার ডগ’। শ্রীলংকা, ভারত, পাকিস্থান তো দূরের কথা জিম্বাবুয়ের মত দেশকে কোনমতে হারালেও সারা দেশে আনন্দের বন্যা বয়ে যেত, পাড়া-মহল্লায় ‘গরু জবাই করে ভোজ দেয়া হত। সময় বদলেছে। বিশ্বের সকল ক্রিকেট খেলুড়ে দেশকে বাংলাদেশ অন্তত একবার করে হারাবার গৌরব অর্জন করেছে। সেই বিবেচনায় ক্রিকেটে বাংলাদেশ বিশ্বকে হারিয়েছে। স্বাধীনতা অর্জন করার চেয়ে রক্ষা করা যেমন কঠিন তেমনই ক্রিকেটের এই সাফল্য ধরে রাখাও বাংলাদেশের জন্য বিশাল চ্যালেঞ্জের ব্যাপার। সম্প্রতি দুবাইয়ের তপ্ত মরুর প্রচ- রোদ্র তাপে দর্শকেরা হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি মাথায় নিয়ে বাংলাদেশের কাছে ‘উপকথার মত বর্ণাঢ্য এবং বিস্ময়কর ‘ এক খেলা উপহার পেল।

২। ‘ইনজুরি’ ক্রিকেটের এক বৈশ্বিক সমস্যার নাম। তামাম দুনিয়ায় সব দলের প্রায় সব খেলোয়াড়ই তাদের লাইফ টাইমে অন্তত একবার ইনজুরি সমস্যায় ভুগেছেন। এবার ইনজুরি নামের দুর্ভাগ্য তামিম ইকবালের পিছু ছাড়ছিল না। সুরাঙ্গা লাকমলের এক একটি শটবল সরাসরি লেগেছিল তামিমের বাঁ হাতে। হাসপাতালে সিটি স্ক্যানে ‘চিড়’ ধরা পড়ল দুই জায়গায়। তামিমের নিজের ভাষায়ই শোনা যাক ‘ইনজুরির বিবরণ ‘ঘুষি পাকালে হাতের যে চারটি হাড় বেরিয়ে থাকে, তর্জনীর ওখানটায় দুই যায়গায় ভেঙেছে। ছয় সপ্তাহের মত সময় লাগবে সেরে উঠতে। তবে অস্ত্রোপচার যদি লাগে তবে সময় আরো বেশী লাগবে। এর আগেও ডান হাতে চোট লেগেছিল। দুই হাতে ইনজুরি নিয়ে আর যাই হোক ক্রিকেট খেলা চলে না !’

৩। দুবাইতে এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হল বাংলাদেশ। প্রথমেই বাংলাদেশের ভাগ্যে ব্যাটিং এর পালা আসল। ল্যাঠা বেড়ে গেল। জিতবার জন্য ইপ্সিত রানের টার্গেট করা যাচ্ছিল না। বিধি বাম। শুরুতেই দুই, তিনটা উইকেট পড়ে গেল। দলনায়ক মুশফিকের জন্য জয় ছিনিয়ে আনাটা কঠিন হয়ে পড়ল। নবম ব্যাটসম্যান মুস্তাফিজ যখন আউট হলেন তখনও বাংলাদেশ ইনিংসের ১৯ বল বাকী। মুশফিকুর রহিম তখন রানের প্রবল তৃষ্ণায় তৃষিত চাতকের মত একজন সহযোদ্ধা কমরেডকে খুঁজছেন। তখন তামিম ইকবালই শেষ ভরসা। বাঁধা দিলেন দলের ফিজিও। কোচ স্টিভ রোডসেরও মানা ছিল। কিন্তু তামিমের বুকের ভিতর এক ঘন্টা ধ্বনি নিরন্তর বাজছিল। সেই ঘন্টা ধ্বনি তামিমকে আর সাজঘরে পুতুলের মত বসিয়ে রাখতে পারলো না। মাঠে নেমে এলো ইনজুরি জর্জর তামিম। তার আত্মপ্রত্যয় ছিল সে পারবে। তামিম আর মুশফিকের জুটির অসাধারণ রসায়ন লঙ্কাকে আরেকবার বধ করল। সারা বিশ্বের লাখো লাখো ক্রিকেট অনুরাগী বিস্ময়মাখা চোখে রুদ্ধশ্বাসে দেখল — হ্যাঁ, তামিম পেরেছে। তাকে পারতেই হয়েছে। কেন না তার বুকের ভিতর যে ঘন্টা ধ্বনি নিরন্তর বেজেছিল সেই ঘণ্টা ধ্বনির নাম ‘বাংলাদেশ যে’!
লেখক, উপ অধিনায়ক ,আর্মড ফোর্সেস ফুড এন্ড ড্রাগস ল্যাবরটরী

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here