মির্জা ফখরুলকে আটকিয়ে দেন নাই কেন : শামসুজ্জামান দুদু

0
224

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুলের জাতিসংঘের সফর নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে দলটির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, জাতিসংঘের মহাসচিব আমাদের দলের মহাসচিবকে আমন্ত্রিত জানিয়ে ছিলেন। বিএনপির নেতাকর্মীরা যে যখনই বিদেশে যায় তাকে এয়ারপোর্টে আপনারা আটকিয়ে দেন, তাহলে মির্জা ফখরুলকে কে আটকিয়ে দেন নাই কেন? তার বিদেশে যাওয়ার ব্যাপারটাও তো আপনারা জানতেন। মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে বাংলাদেশ লেবার পার্টির উদ্যোগে ‘বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে’ সংহতি সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, আমাদেরকে যদি গ্রেফতার করতে চান তাহলে আমাদেরকে বলেন আমরা নিজেরাই গিয়ে হাজির হব, এভাবে বাসা বাড়ি তছনছ করিয়েন না, ছেলে মেয়েদেরকে আর ভয় দেখাবেন না। আমরা মিছিল করে হাজির হব দেখবো কত লক্ষ কোটি মানুষকে-নেতাকর্মীদেরকে আপনারা কারাগারে রাখতে পারেন, জায়গা দিতে পারেন। এভাবে আতঙ্কগ্রস্ত করেন কেন? এটাতো বাংলাদেশ যুদ্ধ হয়েছে গণতন্ত্রের জন্য, কথা বলার জন্য, লেখার জন্য। ডিজিটাল আইনের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘আপনারা (প্রধানমন্ত্রী) কি ডিজিটাল আইন করেছেন? পাকিস্তান আমলেও এত বড় নির্মম আইন হয় নাই।

দুদু বলেন, প্রধানমন্ত্রীর রাগ অভিমান যাই থাকুক না কেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী (খালেদা জিয়া) যাকে দেশের মানুষ, বিশ্বের মানুষ শ্রদ্ধা করে তাকে মিথ্যা মামলায় কারাগারে রেখেছেন? কারাগারে যখন রেখেছেন তার পছন্দের ডাক্তার এবং তাকে সুচিকিৎসা দিচ্ছেন না কেন? এটা কি ধরনের নির্মমতা?’

ছাত্রদলের সাবেক এই সভাপতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, শেখ হাসিনা আপনি যত চেষ্টাই করুন না কেন বিএনপি নির্বাচনে যাবে। শেখ হাসিনাকে পদত্যাগ করে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে বিএনপি নির্বাচনে যাবে। আর আপনাদেরকে এমন হারানো হারাবে যে, আঞ্চলিক একটা কথা আছে যে- গো হারানো হারাবে। আর এসব ঘটবে আগামী এক থেকে দেড় মাসের মধ্যে। লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মুস্তাফিজুর রহমান ইরানের সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, যুবদলের সাবেক ভারপ্রাপ্ত আলবার্ট পি কস্তা প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here