মৃত ও প্রবাসীদের ভোট যেন কাস্ট না হয়: ইসিকে আরিফুল

0
236

গণমাধ্যম ডেস্কঃ  সিলেট সিটি করপোরশনের নির্বাচনের স্থগিত হওয়া কেন্দ্রে মৃত ও প্রবাসীদের ভোট যাতে কাস্ট না হয়ে সেজন্য নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী।

বৃহস্পবার (৯ আগস্ট) আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার সাথে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এসব বলেন তিনি।

আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, যারা মারা গেছেন এবং প্রবাসে আছেন তাদের তালিকাটা কমিশনে দিয়েছি। আমার অনুরোধ থাকবে এসব ভোটার তো নাই। এসব ভোট যেন কাস্ট না। একই সাথে এই হিসাব করলেও আমি অনেক ভোটে এগিয়ে আছি। এখন কমিশন বিষয়টা দেখবেন।

সিলেট নির্বাচন কেমন হলো এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আপনারাই জানেন। মিডিয়াটাও সব কাটছাট করে দেখানো হয়। লাইভ ছাড়া কিছু বলতে চাই না্। নয়ত আপনার কাটছাট করে দেখাবেন।

ভোটের শুরুতে আপনি ভোট সুষ্ঠু হচ্ছে না বলে নানা অভিযোগ তুলেছেন, তারপরও আপনি ভোটে এগিয়ে আছেন- এমন প্রশ্নে জবাবে আরিফুল বলেন, আমি প্রথম থেকে বলছি জনগণের ভোটে আমি নির্বাচিত। আমি বলেছি সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আমি নির্বাচিত হব। কারণ আমার জনগণের প্রতি আমার আস্থা রয়েছে। আমি সেই আত্মবিশ্বাস নিয়ে কথা বলছি। আমি একবারও বলিনি আমি হেরে যাব। তার প্রমাণ পেয়েছেন শত চেষ্টা করেও অনেক অনিয়ম জনগণের কাছে প্রকাশিত হয়নি। তারপরও আমি এগিয়ে রয়েছি।

আমার অভিযোগুলো সিইসি দেখবেন বলে জানান আরিফুল হক।

প্রসঙ্গত গত ৩০ জুলাই রাজশাহী, বরিশাল, সিলেট সিটি করপোরশনের ভোট গ্রহণ হয়। রাজশাহী ও বরিশালে মেয়র পদে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ।

অপরদিকে সিলেটে দুটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত হওয়ায় ঝুঁলে যায় ফলাফল। সিলেটে বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী এগিয়ে আছেন। বিজয়ী হতে তার প্রয়োজন মাত্র ১৬১ ভোট।

সিলেটের স্থগিত হওয়া দুটি কেন্দ্রের ভোট গ্রহণের নতুন তারিখ নির্ধারণ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি) । আগামী ১১ আগস্ট এই দুটি কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) বিধিমালা ২০১০ এর ৩৭(২) বিধি অনুসারে সিলেটে বন্ধ ঘোষিত দুটি কেন্দ্রে আগামী ১১ আগস্ট পুন:ভোট গ্রহণের জন্য নির্বাচন কমিশন নির্দেশ দিয়েছে।

এর আগে রিটার্নিং কর্মকর্তার দপ্তর থেকে সর্বশেষ ঘোষিত বেসরকারি ফলাফলে ১৩৪ ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ১৩২ কেন্দ্রে আরিফুল হক চৌধুরী পেয়েছেন ৯০ হাজার ৪৯৬ ভোট। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরান (নৌকা) পেয়েছেন ৮৫ হাজার ৮৭০ ভোট। আরিফুল ৪ হাজার ৬২৬ ভোটে এগিয়ে রয়েছেন।

অন্য দুটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত রয়েছে। রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান জানান, সিলেটে মোট ভোট কেন্দ্র ১৩৪ টি। এর মধ্যে স্থগিত হওয়া দুটো কেন্দ্রের (২৪ নম্বর ওয়ার্ডের গাজী বুরহানউদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের হবিনন্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়) ভোটার ৪ হাজার ৪৮৭। এ হিসেবে আরিফুল হককে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করতে ১৬১ ভোটের প্রয়োজন ছিল।

নির্বাচনে মোট ভোট পড়েছে ১ লাখ ৯৮ হাজার ৬৫৬ টি। এর মধ্যে বাতিল হয়েছে ৭ হাজার ৩৬৭ ভোট। মোট বৈধ ভোট ১ লাখ ৯১ হাজার ২৮৯।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here