রাজনৈতিক নেতাদের সম্পদের হিসাব যাচাই করা উচিত : সিপিডি

0
197

নিবার্চন কমিশনের উচিত বাংলাদেশ ব্যাংক ও দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এবং রাজস্ব বোর্ড সম্মলিত হয়ে একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা। সেখানে কীভাবে নিবার্চন হবে, নির্বাচন ব্যয় কত হবে, ব্যয়ের বাহিরে অর্থ খরচ করলে তার শান্তি কী হবে এবং এছাড়া নির্বাচনের হলফ নামায় সম্পদের যে বিবরণ দিচ্ছে তার একটি সুষ্ঠ তদন্ত করা। নির্বাচন কমিশনের উচিত দুদকে দায়িত্ব দিয়ে রাজনৈতিক নেতার হলয় নামায় যে সম্পদের বিবরণ দিয়েছে তা তদন্ত করে নির্বাচন কমিশনকে একটি সনদ দেয়া। তাহলে রাজনৈতিক নেতাদের আসল সম্পদের বিবরণ করা যেত।

রোববার ব্রাক সেন্টারে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি) আয়োজিত এক সেমিনারে বিশেষ ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সামগ্রিকভাবে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হলোও মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নতি হয়নি। আগামীতে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ধরে রেখে মানুষের জীবনযাত্রার মান কিভাবে উন্নতি করা হবে। এছাড়া কীভাবে উন্নতি করবে সেই বিষয় বড় রাজনৈতিক দলগুলোকে নির্বাচনের ইশতেহারে সুনিদিষ্টভাবে উল্লেখ করতে হবে ।

তিনি বলে, এই সময়েরকালে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বেড়েছে। তাই এসডিজি বাস্তবায়ন করার জন্য জিডিপিতে আরো প্রবৃদ্ধি বাড়াতে হবে। সেক্ষেত্রে রপ্তানি বাড়াতে হবে । বৈদাশিক মুদ্রা অর্জনের ক্ষেত্রে মানব সম্পাদরে দক্ষতা বাড়াতে হবে। সবচেয়ে বেশি জোর দিতে কৃষিখাতে। এছাড়া স্বাস্থ্য, শিক্ষাখাতে আরো উন্নয়ন করতে হবে। বেকারত্ব কমাতে হবে। এছাড়া সামাজিক নিরাপত্তা জোরদার করতে হবে।

অনুষ্ঠানের প্রতিষ্ঠানটির বিশেষ ফেলো ড. মোস্তাফিজুর রহমান এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। ড. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বড় ঋণের পাশাপাশি এসএমই ঋণের দিকে বেশি জোর দিতে হবে। তাহলে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি আরো বাড়াবে। এছাড়া দেশের উন্নয়ন খাতে কাজের ব্যয় অন্য দেশের তুলায় অনেক বেশি। তাই উন্নয়নের মান ঠিক রেখে ব্যয় কমাতে হবে।

অনুষ্ঠানের উপস্থিতিদের মধ্যে ছিলেন, সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি) নির্বাহী পরিচালক ড. ফাহমিদা খাতুন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here