শান্তিনিকেতনে বাংলাদেশ উৎসব সেপ্টেম্বরে

0
284

মাকসুদা আলম: শান্তি নিকেতনে তিনদিন ব্যাপী বাংলাদেশ উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে।  রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত শান্তিনিকেতনে নির্মিত বাংলাদেশ ভবনের দ্বার সাধারণের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে খুলে দেওয়া হবে আগামী সেপ্টেম্বর মাসে।

গত ২৫ মে বাংলাদেশ ভবন উদ্বোধন করেছিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

উদ্বোধনের সময় বাংলাদেশ ভবনের গ্রন্থাগার ও জাদুঘরের কাজ সম্পূর্ণ না হওয়ায় বিশ্বভারতী বলেছিল, আসছে ২২ শ্রাবণ কবিগুরুর প্রয়াণদিবসে সাধারণের জন্য এই ভবনের দ্বার খুলে দেওয়া হবে। ভবনের গ্রন্থাগার ও জাদুঘরকে আরও আধুনিক ও সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে এখন সেখানে অতিরিক্ত স্মারক, রেপ্লিকাসহ বিভিন্ন তথ্য সংযুক্ত করা হচ্ছে। এ কারণে ভবনের দ্বার সাধারণের জন্য খুলে দেওয়ার সময় একটু পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার সকালে বাংলাদেশ জাদুঘরের মহাপরিচালক আবদুল মান্নান ইলিয়াস প্রথম আলোকে বলেছেন, আগামী সেপ্টেম্বর মাসে শান্তিনিকেতনের বাংলাদেশ ভবনে আয়োজন করা হবে তিন দিনব্যাপী ‘বাংলাদেশ উৎসব’। এই উৎসবের সময় দর্শনার্থীদের জন্য বাংলাদেশ ভবন পুরোপুরি খুলে দেওয়া হবে। যদিও এখন বাংলাদেশ ভবনের কিছু অংশ দেখতে দর্শনার্থীদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে।

আবদুল মান্নান শান্তিনিকেতনে বাংলাদেশ ভবনের নির্মাণকাজ এবং বাংলাদেশ উৎসব নিয়ে কথা বলতে বাংলাদেশ থেকে শান্তিনিকেতনে এসেছেন। তাঁর সঙ্গে বাংলাদেশ থেকে আসা একটি প্রতিনিধিদল ছিল। এই দলে বাংলাদেশের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মুজিবর আল মামুন, কলকাতায় বাংলাদেশ উপহাইকমিশনের বাণিজ্যসচিব মো. সাইফুল ইসলামসহ অন্য সদস্যরা ছিলেন।

প্রতিনিধিদল বিশ্বভারতীর কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। সেখানে বিশ্বভারতীর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ভবনের কো-অর্ডিনেটর অধ্যাপক মানবেন্দ্র মুখোপাধ্যায়, রবীন্দ্র ভবনের প্রাধিকারিক নীলাঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়সহ অন্য কর্মকর্তারা। দুই দেশের প্রতিনিধিদলের বৈঠকে সেপ্টেম্বর মাসে বাংলাদেশ ভবনে ‘বাংলাদেশ উৎসব’ করার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগে আয়োজিত এই উৎসবের সহযোগিতায় থাকবে বিশ্বভারতী। এই উৎসবকে ঘিরে খুলে দেওয়া হবে বাংলাদেশ ভবনের গ্রন্থাগার ও জাদুঘর। তবে বাংলাদেশ থেকে আসা পর্যটকদের এই ভবনে ঢোকার জন্য কোনো প্রবেশমূল্য দিতে হবে না। গ্রন্থাগারে ঢোকার জন্য থাকবে গ্রন্থাগারের কার্ড।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here