শিক্ষা ও গবেষণায় উদ্যোগের অভাব রয়েছে : ইমামুল হক

0
282

রিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, গবেষক প্রফেসর ড. এস এম ইমামুল হক বলেছেন, বর্তমান সরকার শিক্ষা ও গবেষণা ক্ষেত্রে নানামুখী উদ্যোগ নিলেও এক্ষেত্রে পিছিয়ে থাকার অন্যতম কারণ,যারা নীতিনির্ধারক রয়েছেন তাদের উদ্যোগের অভাব রয়েছে।সরকারের উদ্যোগের সাথে একাত্ম হতে পারলে দেশ শিক্ষা ও গবেষণা ক্ষেত্রে আরো উন্নতি লাভ করতে পারবে।

বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) এনডিটিভিকে দেয়া এক সাক্ষতকারে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, অতীতে গবেষণা ক্ষেত্রে কোন অর্থ বরাদ্দ দেয়া হত না কিন্তু পরবর্তীতে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে গবেষণা ক্ষেত্রে অর্থ বরাদ্দ দেয়ার ফলে বর্তমানে গবেষণা ক্ষেত্র আগের থেকে অনেক এগিয়েছে। তবে এই ধারাকে এগিয়ে নিতে ছাত্র সমাজকে গবেষণায় এগিয়ে আসার আহব্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, বর্তমানে বাবা-মা সন্তানকে সময় দিতে পারে না। যার ফলে সন্তানদের তারা পড়াশোনার ক্ষেত্রে খেয়াল করছেন না, ফলে কোচিং বা গৃহ শিক্ষককে প্রাধান্য দিচ্ছেন। এতে করে তারা শুধু মাত্র গৎবাঁধা মুখস্থ করছে সনদ অর্জনের জন্য। এতে বাচ্চাদের প্রতিভার বিকাশ হচ্ছে না. উল্টো বই এর বোঝা দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে। তিনি কোচিং বন্ধের পরামর্শ দেন।

ছাত্র রাজনীতি ও শিক্ষক রাজনীতি নিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে ছাত্র রাজনীতির গৌরবময় ইতিহাস থাকলেও বর্তমানে তা শুধুমাত্র ব্যক্তিস্বার্থে অনেকেই ব্যবহার করে থাকে যার ফলে ছাত্ররা পড়াশুনা থেকে রাজনীতির দিকে বেশি ঝুঁকছে। আর কিছু শিক্ষক এই রাজনীতির সাথে জড়িয়ে শিক্ষা ক্ষেত্রকে কলুষিত করছেন। তিনি আরো বলেন, একজন শিক্ষক রাজনীতি করতেই পারেন কিন্তু তার প্রভাব যেন শিক্ষক সমাজকে কলুষিত না করে।

অধ্যাপক ড. এস এম ইমামুল হক তার পেশাগত জীবনে অসামান্য অবদানের জন্যে বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্সেস গোল্ড মেডেল, বাংলাদেশ ইউজিসি অ্যাওয়ার্ড (২০০৭), বঙ্গবন্ধু কৃষি পদক (২০০৮), বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা পদক (২০০৯) পান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here