শিশুদের জন্য বিটিভিতে ঈদে ৭ অনুষ্ঠান

0
26

সব শ্রেণী-বয়সের দর্শকদের কথা মাথায় রেখে ঈদের অনুষ্ঠান সাজিয়েছে বাংলাদেশ টেলিভিশন। এবার ঈদে ছোটদের জন্য তৈরি হয়েছে ৭টি বিশেষ অনুষ্ঠান। 

এরমধ্যে পাপেট শো সিসিমপুরের আছে তিনটি বিশেষ পর্ব এবং বিশেষ প্রতিভা সম্পন্ন শিশুদের নিয়ে অনুষ্ঠান ‘চাঁদের কণা’, শিশু কিশোরদের ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘অন্য রকম আনন্দ’, ‘বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন সন্তান’ এবং শিশু সাহিত্য বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘ছন্দিত নন্দিত’। 

সিসিমপুরের পাপেট চরিত্র গাছ, মাছ ও পরিবেশপ্রেমী হালুম, নন্দিত উপস্থাপক-বিখ্যাত বিজ্ঞানী এবং বিখ্যাত গোয়েন্দা শিকু, বইপ্রেমী, জ্ঞানপিপাসু, বিখ্যাত ক্রিকেট খেলোয়াড় টুকটুকি, এভাবেই পর্যায় ক্রমে যুক্ত হয় ঝাঁকড়া চুলের নীল বন্ধু ইকরি এবং সাথে আছে শিশু হাসিন, জান্নাত, আদ্রিক, অদিতি, প্রাঙ্গণ ও আনিশা। ঈদের প্রথমদিনে টুকটুকির কাছ থেকে শিশুরা জানতে পারছে ঈদ কী? অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলেই ভিডিও দেখে ভালভাবে ‘সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য’ সম্পর্কে ধারনা পাবে। ইয়াসির আরাফাতের প্রযোজনায় এটি প্রচার হবে ঈদের দিন দুপুর ১টা ৫ মিনিটে। 

সিসিমপুরের ২য় পর্বের বিষয় ‘ঐতিহ্যবাহী মজার খাবার’। সোলেমান হকের প্রযোজনায় এটি প্রচারিত হবে ঈদের ২য় দিন দুপুর ১টা ৫ মিনিটে। ঈদের তৃতীয় দিনে থাকছে পাপেট হালুমের উপস্থাপনায় হরেক রকম বিষয়টা কি, বিষয়টা জানতে পারবে সবাই। সৈয়দা ফারহানা হাসানের প্রযোজনায় এটি প্রচার হবে ঈদের ৩য় দিন সকাল ৯ টা ৩০ মিনিটে।

বিশেষ প্রতিভা সম্পন্ন শিশুদের নিয়ে অনুষ্ঠান ‘চাঁদের কণা’ প্রচার হবে ঈদের দিন সকাল ১১টা ২৫ মিনিটে। জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত শিশু শিল্পীদের নিয়ে নাচ, গান, অভিনয়, আবৃত্তি ও এ্যক্রোবেট পরিবেশনা রয়েছে। অংশগ্রহণে- সমৃদ্ধা শামস, ইমামা আসফি, মাইশা আহমেদ রোজা, রিফা সানজিদা মুসকান, সুহৃদ সাম্যদীপ, পারমিতা মল্লিক প্রমি, পূর্ণতা, আদিবা, রুপন্তি। উপস্থাপনা করেছেন আফরিন অথৈ। আনজীর লিটনের গ্রন্থনায় এটি প্রযোজনা করেছেন গোলাম মোর্শেদ। 

শিশু কিশোরদের ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘অন্য রকম আনন্দ’ প্রচার হবে ঈদের ২য় দিন সকাল ৮টা ১৫ মিনিট। নাচ, গান, কৌতুক, যাদু, ব্যান্ড শো, ফ্যাশন শো এসবের মাধ্যমে সাজানো হয়েছে অনুষ্ঠানটি। উপস্থাপনা করেছেন রোদেলা সুভাসিনি টাপুর, মেঘনা সুহাসিনি টুপুর ও সুজাত শিমিল। লিটু সাখাওয়াতের রচনায় এটি প্রযোজনা করেছেন এরশাদ হোসেন। 

শিশু সাহিত্য বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘ছন্দিত নন্দিত’ প্রচার হবে ঈদের ২য় দিন সকাল ১০ টা ৩৫ মিনিটে। এ আয়োজনে থাকবে বিশিষ্ট কবিদের আলোচনা (কবি নূরুল হুদা, কবি কাজী রোজী ‍ও সুজন হাজং), ছড়াকারকদের আড্ডা, দলীয় নৃত্য, একক গান, নাটিকা (সচেতনতামূলক) ও আবৃত্তি। সরোজ কুমার রাহুলের প্রযোজনায় এটি উপস্থাপনা করেছেন আসলাম সানী। 

শিশুতোষ অনুষ্ঠান ‘বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন সন্তান’ প্রচার হবে ঈদের ৫ম দিন সকাল ১১টায়। বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন সন্তান, তাদের অভিভাবক, বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও গবেষকদের অংশগ্রহণ থাকবে এ অনুষ্ঠানে। শেখ মুন্নীর উপস্থাপনায় এটি প্রযোজনা করেছেন নাজমুল হক। সূত্র : বাংলা ট্রিবিউন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here