হোসনি দালান ইমামবাড়ায় হামলার ৩ বছর আজ

0
590

হোসনি দালানে তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতিতে হামলার দীর্ঘসূত্রিতায় হতাশ শিয়া সম্প্রদায়। এক বছরে শেষ হয় মামলার তদন্ত কাজ, পাঁচ মাস যায় বিচার কাজ শুরু করতে। শুরুর পর ১৬ মাসে মামলার ৪৬ সাক্ষির মধ্যে আদালতে সাক্ষ্য দেন ৭ জন। মামলাটি স্পর্শকাতর হওয়ায় সময় লাগছে – দাবি রাষ্ট্রপক্ষের।

২০১৫ সালের ২৩শে অক্টোবর রাতে হাজিয়া মিছিলের প্রস্ততির সময় হামলা হয় পুরান ঢাকার হোসেনি দালানের ইমাম বাড়ায়। নিহত হন দুজন। আহত হন শতাধিক।

ঘটনার এক বছর পর ২০১৬ সালের ১৮ ডিসেম্বর ১০ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় গোয়েন্দা পুলিশ। ঘটনায় জড়িত থাকার প্রমান মেলে জঙ্গিদের। মামলায় সাক্ষী করা হয় ৪৬ জনকে।

বিচারকাজের দীর্ঘ প্রক্রিয়া, রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলছেন স্পর্শকাতর মামলা দ্রুত শেষ করার চেষ্টা চলছে। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আব্দুল্লাহ আবু বলেন,এই মামলার ৪৬ জন সাক্ষীর মধ্যে ৭ জনের সাক্ষ্য প্রমাণ নেয়া হয়েছে।বাকী আরও ৩৯ জন সাক্ষী আছে।যারা সাক্ষ্য প্রমাণ দিয়েছে তারা ভালো সাক্ষ্যই দিয়েছে। আমরা আশাবাদী প্রসিকিউশনের পক্ষ থেকে এই মামলা প্রমাণ করা সম্ভব হবে এবং দোষীদের দ্রুত শাস্তির ব্যবস্থা করা যাবে।

বিচার শেষ না হওয়ায় হতাশার কথা বললেও সরকার বা বিচার বিভাগের প্রতি আস্থার কথা জানিয়ে দ্রুত বিচারকাজ শেষ করার তাগিদ তাদের।

হোসাইনি দালান ইমামবাড়ার অধ্যক্ষ এম এম ফিরোজ হোসেন জানান, আমরা দোষীদের দ্রুত বিচার দাবি করছি। আমরা সরকারের কাছে এই বিচার কাজ দ্রুত শেষ করার আহ্বান জানাচ্ছি।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আব্দুল্লাহ আবু জানান, এই মামলায় সাক্ষীদের অনেকবার তারিখ দেয়া হলেও তারা আসেনি।পুলিশের দায়িত্ব ছিল সাক্ষীদের আনা।মামলায় অভিযুক্তদের দোষী প্রমাণ করতে হলে সাক্ষীদের সাক্ষ্যপ্রমাণ জরুরী। – ডিবিসি

হোসনি দালান ইমামবাড়ায় হামলার ৩ বছর আজ

হোসনি দালান ইমামবাড়ায় হামলার ৩ বছর আজ। ২১ সেপ্টেম্বর/১৮ #dvcnews

Posted by DBC NEWS on Thursday, September 20, 2018

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here